• জুলাই ২৮, ২০২১
  • Last Update জুলাই ২৭, ২০২১ ১১:৪৪ অপরাহ্ণ
  • বাংলাদেশ

এমবিবিএস পাশ না করেই নামের আগে ডাক্তার, চেম্বার খুলে দেখছেন রোগীও

এমবিবিএস পাশ না করেই নামের আগে ডাক্তার, চেম্বার খুলে দেখছেন রোগীও

সেলিম রেজা: এমবিবিএস পাশ না করেই হয়েছেন চিকিৎসক। রীতিমত ডাক্তার পদবী ব্যবহার করে ঝলমলে চেম্বার খুলে দিচ্ছেন চিকিৎসা। গ্রামীণ জনপদের মানুষ তাদের পদপদবী ও ঝলমলে চেম্বার দেখে আর্কষিত হয়ে চিকিৎসা সেবার নামে নিচ্ছেন অপচিকিৎসা। এমনি নিত্যদিনের চিকিৎসার নামে প্রতারণার শিকার হচ্ছেন সিরাজগঞ্জের বেলকুচি উপজেলা ধুকরিয়াবেড়া ইউনিয়নসহ পাশ্ববর্তী এলাকার মানুষ।

সরজমিনে গিয়ে দেখা যায়, উপজেলার ধুকুরিয়াবেড়া জমিদার প্লাজার নিচ তলায় রয়েছে মা মেডিক্যাল হল ও তিশা মেডিক্যাল এন্ড অপটিক্যাল সেন্টার নামে দুটি চিকিৎসা কেন্দ্র রয়েছে। প্রতিষ্ঠান দুটির একজন হলো কথিত ডাক্তার আব্দুল জব্বার আরেকজন তাহাজ্জত হোসেন। নিজেদের ডাক্তার হিসাবে পরিচিত ঘটাতে নিজের নামের আগে ডাক্তার পদবী ব্যবহার করছেন। যার ফলসরুপ স্থানীয়সহ পাশ্ববর্তী কয়েকটি গ্রামের মানুষ চিকিৎসা সেবা নিচ্ছেন। আব্দুল জব্বার ও তাহাজ্জত হোসেনের সাথে এ সম্পর্কে কথা বললে তারা জানান, আমরা দুজন মেডিক্যাল এসিস্ট্যান্ট কলেজ থেকে ৪ বছর মেয়াদী ডিপ্লোমা কোর্স করে এসেছি।

তাছাড়াও সবাই তো দেখি নামের আগে ডাঃ বসিয়ে থাকেন। বিধায় আমরা আমাদের নামের আগেও ডাক্তার বসিয়েছি। এতে দোষের কি আছে? এ বিষয়ে স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান মাহবুবুর রশিদ শামীম বলেন, আমরা জনগের স্বার্থ নিয়ে সবসময় কাজ করে থাকি। তারা যে কাজটি করছেন এটি উচিত নয়। এ ধরণের কাজ থেকে বিরত থাকাই ভালো। আর বেলকুচি উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের ডাঃ মোফাখখারুল ইসলাম জানান, এমবিবিএস কোর্স শেষ না হওয়া পর্যন্ত কেউ তার নামের আগের ডাঃ পদবী বসাতে পারবে না। এটা আইন-বহির্ভূত কাজ। জানতে চাইলে বেলকুচি উপজেলা নির্বাহী অফিসার আনিসুর রহমান মঙ্গলবার সকালে বলেন, এ বিষয়ে কেউ কোন লিখিত অভিযোগ করেনি। অভিযোগ পেলে তদন্ত সাপেক্ষে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *