• সেপ্টেম্বর ১৯, ২০২০
  • Last Update সেপ্টেম্বর ১৪, ২০২০ ৫:১৫ অপরাহ্ণ
  • বাংলাদেশ

ফুটবল উন্নয়নে নিবরে-নিভিত্তে কাজ করে যাওয়া এক প্রচারবিমুখ সংগঠক সৈয়দ রিয়াজুল করিম

ফুটবল উন্নয়নে নিবরে-নিভিত্তে কাজ করে যাওয়া এক প্রচারবিমুখ সংগঠক সৈয়দ রিয়াজুল করিম

বাফুফে নির্বাচন এখন দোরগোড়ায় কড়া নাড়ছে। আর মাত্র ২০ দিন পরেই বহুল কাঙ্খিত এ নির্বাচন ব্যালট বাক্সে গড়াতে যাচ্ছে। নির্বাচনী বৈতরণী পার হতে এরই মধ্যে প্রার্থীরা দৌড়ঝাঁপ শুরু করেছেন। বাফুফে নির্বাচনে ২১ পদে লড়ছেন ৪৯ প্রার্থী। তফসিল ঘোষণার পর থেকে জমজমাট নির্বাচনীর আভাস ছড়ালেও শেষ পর্যন্ত সেটা এক তরফায় না পরিণত হয় সেটাই দেখার বিষয়। এ নির্বাচনে প্রার্থীদের ব্যাপক ছড়াছড়ি থাকলেও শুধুমাত্র বর্তমান সভাপতি কাজী মো. সালাউদ্দিনের নেতৃত্বে সম্মিলিত পরিষদ নামে ২১ জনের একটি প্যানেলই দৃশ্যমান দেখা যাচ্ছে।

তবে এ প্যানেলের বিপরীতি ২৮ জন প্রার্থী বিচ্ছিন্নভাবে মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন। তারা এক হয়ে লড়বেন নাকি বিচ্ছিন্নভাবেই নির্বাচনী মাঠে থাকবেন সেটা অবশ্য চূড়ান্ত প্রার্থী তালিকা প্রকাশের পরেই জানা যাবে। বর্তমান বাফুফে সভাপতি কাজী মো. সালাউদ্দিনের নেতৃত্বে সম্মিলিত পরিষদ নামে একটি প্যানেলই দৃশ্যমান। এ প্যানেলের বিপরীতি ২৮ জন প্রার্থী বিচ্ছিন্নভাবে মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন। এদিকে বাফুফে নির্বাচনে বিশেষ করে সদস্য পদে একঝাঁক তরুণ সংগঠক এবার নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করতে যাচ্ছেন। তাদের সবার চোখেমুখেই আগামীদিনের ফুটবল উন্নয়নে কাজ করার স্পৃহা দেখা যাচ্ছে।

তাদেরই একজন সৈয়দ রিয়াজুল করিম। ফকিরেরপুল ইয়ংমেন্স ক্লাবের কাউন্সিলর হয়ে তিনি কাজী মো. সালাউদ্দিনের নেতৃত্বে সম্মিলিত পরিষদে সদস্য পদে লড়ছেন। তরুণ এ সংগঠক ক্লাবটির সহসভাপতি ও ফুটবল কমিটির চেয়ারম্যান। তার সাংগঠনিক দক্ষতায় ফকিরেরপুল ইয়ংমেন্স ক্লাব ঘরোয়া ফুটবলে আবারো এগিয়ে যেতে শুরু করেছে। সৈয়দ রিয়াজুল করিম বলেন, নির্বাচনে প্রার্থী হবার পর কাউন্সিলরদের কাছ থেকে তিনি বেশ সাড়া পাচ্ছেন। শুধু তাই নয়, ফুটবলের সাথে সম্পৃক্ত সবাই তাকে এগিয়ে যেতে দারুণভাবে উৎসাহিত করছেন। সবার সম্মিলিত প্রচেষ্টাই তার নির্বাচনী প্রচারণা এগিয়ে চলেছে। ভোটারদের সাথে সবসময়ই তিনি যোগাযোগ রাখছেন। সবার দোয়া ও সহযোগিতা নিয়ে এগিয়ে যেতে চান ফুটবলের এ জনপ্রিয় সংগঠক। বাফুফে নির্বাচনে সদস্য পদে অন্যযতম নতুন মুখ সৈয়দ রিয়াজুল করিম ফুটবল অঙ্গনের জনপ্রিয় মুখ সৈয়দ রিয়াজুল করিম ব্যবসায়ী মহলেও ভীষণ পরিচিত। একজন তরুণ সমাজসেবক হিসেবেও রয়েছে তার বিশেষ পরিচিতি। যে কারোর বিপদআপদে পাশে দাঁড়ানো তার সেই ছোট্টবেলা থেকেই অভ্যাস।

বর্তমানে বৈশ্বিক করোনাভাইরাসকালেও তিনি ফুটবলের সাথে সংশ্লিষ্ট অসহায়, অস্বচ্ছল ও দুস্থদের নিরবে-নিভিত্তে সহযোগিতা করেছেন। প্রচারবিমুখ এ ক্রীড়া সংগঠক নিরবেই কাজ করতে ভালবাসেন। কাজী মো. সালাউদ্দিনের প্যানেল থেকে সদস্য পদে নির্বাচন করতে যাওয়া সৈয়দ রিয়াজুল করিম বিজয়ের ব্যাপারে ভীষণ আশাবাদী। তিনি জানান, সেই ছোট্ট বেলা থেকেই ক্রীড়া-সাংস্কৃতিক আর স্বাধীনতার স্বপক্ষের রাজনীতির সাথে বেড়ে উঠেছি। সৈয়দ রিয়াজুল করিম এক প্রশ্নের জবাবে বলেন, ফুটবল উন্নয়নে আমি কাজ করতে চাই। তৃনমূলপর্যায়ের ফুটবলের ভিত আরো মজবুতভাবে গড়তে চাই। তিনি আরো জানান, চূড়ান্ত তালিকা প্রকাশের পর আমাদের প্যানেল যখন নির্বাচনী ইশতেহার ঘোষণা করবে, তখন ফুটবল উন্নয়নে আমরা আরো কী কী করতে চাই সবাই জানতে পারবেন।

ফকিরেরপুল ইয়ংমেন্স ক্লাবের নির্বাচনী প্রচারণায় সৈয়দ রিয়াজুল করিম এদিকে একঝাঁক তরুণ সংগঠকদের নির্বাচনে অংশগ্রহণ__ ইতিবাচক হিসেবেই দেখছেন জাতীয় দলের সাবেক অধিনায়ক বিপ্লব ভট্টাচার্য ও তারকা ফুটবলার জাহিদ হাসান এমিলি। তারা বলেন, প্রবীণ আর দেশবরেণ্য সংগঠকদের সাথে কাজ করতে করতে এসব তরুণ সংগঠকরা অভিজ্ঞ হয়ে ভবিষৎতে ঘরোয়া ফুটবলকে আরো এগিয়ে নিতে অবদান রাখবেন। অপরদিকে ফুটবলের সাথে সংশ্লিষ্ট অভিজ্ঞ মহল মনে করেন ঘরোয়া ফুটবলকে এগিয়ে নিতে হলে, আন্তর্জাতিক পরিসরে তুলে ধরতে হলে সৈয়দ রিয়াজুল করিমদের মতো মেধাবী তরুণ সংগঠকদেরই ফুটবলে ভীষণ প্রয়োজন।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *