• অক্টোবর ৪, ২০২২
  • Last Update অক্টোবর ১, ২০২২ ৭:১০ অপরাহ্ণ
  • বাংলাদেশ

উজিরপুরে আন্তর্জাতিক নারী নির্যাতন প্রতিরোধ ও বেগম রোকেয়া দিবস পালিত

উজিরপুরে আন্তর্জাতিক নারী নির্যাতন প্রতিরোধ ও বেগম রোকেয়া দিবস পালিত

উজিরপুরে আন্তর্জাতিক নারী নির্যাতন প্রতিরোধ ও বেগম রোকেয়া দিবস পালিত
মাননীয় প্রধান মন্ত্রীর কারনেই শ্রেষ্ঠ জয়িতারা সংবর্ধনা পাচ্ছে-এমপি শাহে আলম

বরিশাল-২ আসনের সংসদ সদস্য মোঃ শাহে আলম বলেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর জন্য দেশের শ্রেষ্ঠ জয়িতারা আজ সংবর্ধনা পাচ্ছে। বর্তমান সরকার নারী বান্ধব সরকার । নারী পুরুষের একত্রিত প্রচেষ্ঠাই দেশ আজ উন্নয়নের উচ্চ শিখরে। ৯ ডিসেম্বর বুধবার বরিশালের উজিরপুরে আন্তর্জাতিক নারী নির্যাতন প্রতিরোধ পক্ষ ও বেগম রোকেয়া দিবস উপলক্ষে শ্রেষ্ঠ জয়িতাদের সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতা করেন এমপি। এ উপলক্ষে আলোচনা সভায় উপজেলা নির্বাহী অফিসার প্রণতি বিশ্বাসের সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথির বক্তৃতা করেন উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আঃ মজিদ সিকদার বাচ্চু, উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি ও জেলা পরিষদের সদস্য এস.এম জামাল হোসেন, সাধারন সম্পাদক ও পৌর মেয়র মোঃ গিয়াস উদ্দিন বেপারী, ভাইস চেয়ারম্যান অপূর্ব কুমার বাইন রন্টু, সীমা রানী শীল, জেলা মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা দিলারা বেগম, শুভেচ্ছা বক্তৃতা করেন উপজেলা মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা কাজী ইসরাত জাহান।

নুরুল আলম বক্তিয়ারের সঞ্চালনায় বক্তৃতা করেন উপজেলার শ্রেষ্ঠ জয়িতাদের মধ্যে শিক্ষা চাকুরী ক্ষেত্রে সাফল্য অর্জনকারী নারী উপজেলার গুঠিয়া ইউনিয়নের ডহরপাড়া গ্রামের ফজলুর রহমানের মেয়ে গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের অবসরপ্রাপ্ত সচিব ও বর্তমানে বাংলাদেশ সরকারি কর্ম কমিশননের সদস্য ওএন সিদ্দিকা খানম, সফল জননী ধামুরা গ্রামের মৃত নুর মোহাম্মদ জমাদ্দারের স্ত্রী সোয়েবা বেগম যার বড় মেয়ে যুগ্ম সচিব, দ্বিতীয় মেয়ে বিসিএস স্বাস্থ্য বিভাগের ডাক্তার, তৃতীয় ছেলে বিসিএস সাধারণ শিক্ষায় সহকারী পরিচালক, চতুর্থ ছেলে পররাস্ট্র মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র এনলিষ্ট ইন্টারন্যাশনাল এ্যাসিস্ট্যান্ট অপারেশন কানাডা প্রবাসী। নির্যাতনের বিভিষিকা মুছে ফেলে নতুন উদ্যোমে জীবন শুরু করেছেন ধামুরা গ্রামের মৃত জয়নাল আবেদীনের মেয়ে সাজিদা আবেদ, তিনি বিভিন্ন ধাত প্রতিধাত পেরিয়ে এক সন্তানকে বিসিএস ইঞ্জিনিয়ার করেছেন।

ছোট মেয়ে জাহাঙ্গীর নগর বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রী এবং বড় মেয়েকে সু-শিক্ষায় শিক্ষিত করে বিবাহ দিয়েছেন। অর্থনৈতিকভাবে সাফল্য অর্জনকারী নারী দক্ষিণ মাদার্শী গ্রামের বক্তার হোসেনের স্ত্রী সুমাইয়া বেগম, তিনি বিভিন্ন প্রশিক্ষণ গ্রহন করে অর্থনৈতিকভাবে সাফল্য অর্জন করেছেন। সমাজ উন্নয়নে অসামান্য অবদান রেখেছেন দক্ষিণ শিকারপুর গ্রামের মৃত আঃ হামেদ সরদারের মেয়ে জুলেখা বেগম, তিনিও বিভিন্ন ঘাত প্রতিঘাত পেরিয়ে নিজেকে সমাজে প্রতিষ্ঠিত করেছেন। এলাকায় একজন জনপ্রিয় সেবিকা ও মহিলা পরিষদের নেত্রী হিসেবে পরিচিতি অর্জন করেছেন। শ্রেষ্ঠ জয়িতাদের বক্তৃতায় অবসর প্রাপ্ত সচিব ও সরকারী কর্ম কমিশনের সদস্য ওএন সিদ্দিকা বলেন আপনারা ঘুমিয়ে স্বপ্ন না দেখে জেগে জেগে স্বপ্ন দেখুন, আমাদেরকে সামাজিক ও রাস্ট্রিয় উন্নতির পাশাপাশি মানুষ হিসেবেও উন্নত হতে হবে। আমাদের মানসিকতার পরিবর্তন ঘটিয়ে নারীদের সুশিক্ষায় শিক্ষিত করতে পারলেই দেশ উন্নত হবে।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published.