• জুন ২৫, ২০২২
  • Last Update জুন ২৪, ২০২২ ১১:৫৫ পূর্বাহ্ণ
  • বাংলাদেশ

গৌরনদীতে ছাত্রলীগের দুই গ্রুপের সংঘর্ষ, ৩ মামলায় আসামি ১৩৩

গৌরনদীতে ছাত্রলীগের দুই গ্রুপের সংঘর্ষ, ৩ মামলায় আসামি ১৩৩
বরিশালের গৌরনদীতে আধিপত্য বিস্তার ও বালু ভরাটের ঘটনাকে কেন্দ্র করে ছাত্রলীগের দুই গ্রুপের মধ্যে সংঘর্ষ ও ভাঙচুরের ঘটনায় আওয়ামী লীগ, যুবলীগ ও ছাত্রলীগের মোট ১৩৩ নেতাকর্মীকে আসামি করে থানায় পৃথক তিনটি মামলা দায়ের করা হয়েছে। রবিবার ঘটনার সঙ্গে জড়িত থাকার অভিযোগে চার ছাত্রলীগ নেতা-কর্মীকে গ্রেফতার করে আদালতে সোপর্দ করে পুলিশ। পরে আদালত তাদের কারাগারে প্রেরণ করে।
গৌরনদী মডেল থানা সূত্রে জানা যায়, রবিবার সকালে উপজেলার উত্তর বিজয়পুর এলাকার আহত আওয়ামীলীগ নেতা রাশেদুজ্জামান ঝিলাম বাদী হয়ে ১৮ জনের নাম উল্লেখসহ ছাত্রলীগের ২০ নেতাকর্মীকে আসামি করে চাঁদাবাজির মামলা করেন। সরকারি গৌরনদী কলেজের সাবেক ভিপি সুমন মাহামুদের মা মিনারা বেগম বাদী হয়ে ১১ জনের নাম উল্লেখসহ আওয়ামী লীগ, যুবলীগ ও ছাত্রলীগের ৬১ নেতাকর্মীকে আসামি করে চাঁদাবাজি-ভাঙচুরের এবং দক্ষিণ পালরদী এলাকার যুবলীগ নেতা সাদ্দাম সরদার বাদী হয়ে ৩২ জনের নামোল্লেখসহ ছাত্রলীগের ৫২ জনকে আসামি করে মোটর সাইকেল ভাংচুর ও বিস্ফোরক আইনে মামলা দায়ের করেন।
ওই তিনটি মামলায় উল্লেখযোগ্য আসামিরা হলেন- পৌর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও পৌর কাউন্সিলর আতিকুর রহমান শামীম, উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি জুবায়ের ইসলাম সান্টু ভূইূয়া, সাধারণ সম্পাদক লুৎফর রহমান দ্বীপ, সরকারি গৌরনদী কলেজের সাবেক ভিপি সুমন মাহামুদ ওরফে সুমন মোল্লা, পৌর ছাত্রলীগের সভাপতি মিলন খলিফা, কলেজ ছাত্র সংসদের সাবেক এজিএস রিয়াদ হাওলাদার, ছাত্র সংসদের সাবেক ক্রীড়া সম্পাদক আরিফ মিয়া, সাবেক সাহিত্য সম্পাদক বেল্লাল মিয়া, ছাত্রলীগ নেতা জাবির আল মামুন, সাকিব হোসেন চোকিদার, যুবলীগ নেতা কালা আলামিন, ছাত্রলীগ নেতা বাশার সরদার, সুমনের সহোদর ভাই সাগর মোল্লা, আতিক মিয়া, সাকির হোসেন, অশোক ওরফে ধলু ধোপা, শহিদুল খান, আলামিন মোল্লা, শাওন সরদার, মিলন তালুকদার, মেরাজ মোল্লা, উজ্জল সরদার।
গৌরনদী থানার ইন্সপেক্টর (তদন্ত) মো. মাহাবুবুর রহমান জানান, সংঘর্ষের পর অভিযান চালিয়ে কলেজ ছাত্রলীগের সভাপতি শাখাওয়াত হোসেন সুজনের সহোদর ভাই শাওন হাওলাদার ও মুহিন হাওলাদার, ছাত্রলীগ কর্মী রায়হান মুজিবকে ঝিলামের মামলায় ও ছাত্রলীগ কর্মী মশিউর রহমান চয়ন সাদ্দাম সরদারের মামলায় গ্রেফতার দেখানো হয়েছে। গ্রেফতারকৃতদের রবিবার দুপুরে বরিশাল আদালতে সোপর্দ করা হলে আদালতের বিচারক তাদেরকে কারাগারে প্রেরণ করেন। ওই তিনটি মামলার বাকি আসামিদের গ্রেফতারের জোর প্রচেষ্টা অব্যাহত রয়েছে। এ ঘটনায় উত্তেজনা বিরাজ করায় গৌরনদী বাসস্টান্ডে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।
উল্লেখ্য, বালু ভরাটের ঘটনাকে কেন্দ্র করে শনিবার বিকালে বরিশালের গৌরনদীতে ছাত্রলীগের দু’গ্রুপের মধ্যে হামলা-পাল্টা হামলা, ধাওয়া-পাল্টাধাওয়া ও সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। এতে ওসিসহ সাত পুলিশ সদস্য ও ছাত্রলীগের ১০ নেতাকর্মী আহত হয়েছে। এ সময় দুইটি বাড়ি, একটি অফিস ও ১৭টি মোটর সাইকেল ভাংচুর করা হয়

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published.