• ডিসেম্বর ২, ২০২২
  • Last Update নভেম্বর ২৫, ২০২২ ৬:৫৪ অপরাহ্ণ
  • বাংলাদেশ

উজিরপুরে মৃত ব্যক্তির করোনা সনাক্তে পিপি ছাড়াই উপস্থিত হলেন স্বাস্থ্য কর্মকর্তা।

উজিরপুরে মৃত ব্যক্তির করোনা সনাক্তে পিপি ছাড়াই উপস্থিত হলেন স্বাস্থ্য কর্মকর্তা।

উজিরপুরে মৃত ব্যক্তির করোনা সনাক্তে পিপি ছাড়াই উপস্থিত হলেন স্বাস্থ্য কর্মকর্তা। পৌরসভার ৩ নং ওয়ার্ডের কালীর বাজার সংলগ্ন মৃত সনাতন দাসের স্ত্রী ঊষা রানী দাস(৮০) শনিবার ভোর রাতে মারা যায়। মারা যাওয়াকে কেন্দ্র করে এলাকায় বিভিন্ন বিতর্ক শুরু হলে বিষয়টি নিয়ে পৌর মেয়র মোঃ গিয়াস উদ্দিন বেপারী শনিবার বেলা ১১টায় উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা প্রণতি বিশ্বাসকে অবহিত করেন। নির্বাহী কর্মকর্তা উপজেলা স্বাস্থ্য ও পঃ পঃ কর্মকর্তা মোঃ শওকত আলীকে ঘটনাস্থলে গিয়ে লাশটি সম্পর্কে সিদ্ধান্ত দেওয়ার জন্য নির্দেশনা প্রদান করেন। বেলা সাড়ে ১১টায় স্বাস্থ্য ও পঃ পঃ কর্মকর্তা মোঃ শওকত আলী পিপি ছাড়াই লাশের স্থানে উপস্থিত হন। এ সময় উপস্থিত ছিলেন পৌর মেয়র মোঃ গিয়াস উদ্দিন বেপারী, স্থানীয় ওয়ার্ড কাউন্সিলর দিলিপ কুমার সিকদার সহ অনেকে।

তবে পরিবার ও স্থানীয়দের দাবী ঊষা রানী পূর্ব থেকেই বিভিন্ন জটিল রোগে আক্রান্ত ছিলেন। বর্তমানে করোনা সংক্রান্ত কোন লক্ষন তার মধ্যে ছিলনা। স্বাস্থ্য ও পঃ পঃ কর্তকর্তা ডাঃ শওকত আলী জানান পিপি না পড়লেও হ্যান্ডগেøাবস ও মাষ্ক পরে ওখানে উপস্থিত হয়েছি। ঊষা রানীর বার্ধক্য জনিত কারনে মৃত্যু হয়েছে। করোনা ভাইরাসের কোন লক্ষন তার মধ্যে ছিলনা। এ সময় মোঃ গিয়াস উদ্দিন বেপারী ওই পরিবারকে লাশ সৎকারের জন্য নগদ আর্থিক সহযোগীতা প্রদান করেন। উল্লেখ্য কিছুদিন পূর্বে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও মাননীয় সংসদ সদস্য উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তার হাতে পিপি সহ বিভিন্ন স্বাস্থ্য উপকরণ প্রদান করেন।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *