• জুন ২৫, ২০২২
  • Last Update জুন ২৪, ২০২২ ১১:৫৫ পূর্বাহ্ণ
  • বাংলাদেশ

উজিরপুরে পাওনা টাকা চাওয়ায় দফায় দফায় হামলা-থানায় অভিযোগ

উজিরপুরে পাওনা টাকা চাওয়ায় দফায় দফায় হামলা-থানায় অভিযোগ

উজিরপুরের ওটরায় পাওনা টাকা চাওয়াকে কেন্দ্র করে দফায় দফায় হামলা, স্ত্রীর শ্লীলতা হানিসহ বাড়িঘর ভাংচুরের অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ব্যাপারে উজিরপুর মডেল থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছে ভ‚ক্তভোগী। অভিযোগ ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, উপজেলার ওটরা গ্রামের আবুল কালাম ফকিরের ছেলে আঃ রহিম ফকিরের মাছের ঘের থেকে ৬ মাস পূর্বে পূর্ব ওটরা গ্রামের মৃত ফজলু হাওলাদারের ছেলে কবির হাওলাদার ৫৭ হাজার টাকার পোনা মাছ ক্রয় করে। নগদ ২১ হাজার টাকা দিয়ে পরে দেওয়ার কথা বলে ৩৬ হাজার টাকা বাকি রাখে। গত ৩১ জানুয়ারী বিকাল ৫টায় রহিম ফকির ওটরা ওয়াপদা বাজারে বসে কবির হাওলাদারের কাছে পাওনা টাকা চাওয়ায় কবির হাওলাদার তাকে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করলে এক পর্যায়ে উভয়ের মধ্যে হাতাহাতি হয়। পরে স্থানীয়রা উভয়কে শান্ত করে বিরোধ মিমাংশার জন্য ২ জানুয়ারী শালিস বৈঠকের সিদ্ধান্ত নেয়। কিন্তু কবির হাওলাদার কোন কিছু কর্ণপাত না করে হাতাহাতির সূত্র ধরে ১ ফেব্রæয়ারী সকাল সাড়ে ৯টায় ৮/১০ জন সন্ত্রাসী নিয়ে আঃ রহিম ফকিরের বাড়িতে গিয়ে লোহার রড, লাঠিসোটা ও ইটপাটকেল নিক্ষেপ করে অতর্কিত ভাবে হামলা চালিয়ে বসত ঘরের দরজা জানালাসহ আসবাবপত্র ভাংচুর করে। এ সময় রহিম ফকিরকে না পেয়ে তার স্ত্রীর উপর শ্লীলতা হানি ঘটায়। এ ব্যাপারে আঃ রহিম ফকিরের স্ত্রী মোসাঃ আয়শা আক্তার বাদী হয়ে একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করে। রহিম ফকির জানান, পাওনা ৩৬ হাজার টাকা চাওয়ায় আমাকে মেরে ফেলার উদ্দেশ্যে আমার বাড়িতে হামলা চালিয়ে ৫০ হাজার টাকার উপরে ক্ষতিসাধন করেছে। উজিরপুর মডেল থানার ওসি তদন্ত হেলাল উদ্দিন জানান, অভিযোগ পেয়েছি, তদন্ত সাপেক্ষে দ্রæত আইনগত ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published.