• জুন ২৭, ২০২২
  • Last Update জুন ২৪, ২০২২ ১১:৫৫ পূর্বাহ্ণ
  • বাংলাদেশ

কালীগঞ্জ ঘাটে লঞ্চ ভিড়তে দিচ্ছেনা সাংসদ পঙ্কজ নাথের ব্যক্তিগত লোকজন

কালীগঞ্জ ঘাটে লঞ্চ ভিড়তে দিচ্ছেনা সাংসদ পঙ্কজ নাথের ব্যক্তিগত লোকজন

 নিজন্ব প্রতিবেদক, বরিশাল:- বরিশালের মেহেন্দিগঞ্জের কালীগঞ্জ ঘাটে হাতিয়া, দৌলাত খা, দেয়ানবাড়ি ও ঢাকাগামি লঞ্চ ভিড়তে দেওয়া হচ্ছে না। বরিশাল-৪ (হিজলা-মেহেন্দিগঞ্জ) আসনের সংসদ সদস্য পঙ্কজ নাথের নির্দেশে তাঁর লোকজনের বাধায় ঘাটে লঞ্চ ভিড়তে পারছে না এমন অভিযোগ রয়েছে তার বিরুদ্ধে। সংশ্লিষ্ট সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে পঙ্কজ নাথের লোকজনের বাধার কারনে পূর্বে দীর্ঘ দিন ধরে ওই ঘাটে লঞ্চ ভিড়েনি। ওই রুটে চলাচলকারী যাত্রীরা কয়েক কিলোমিটার ঘুরে বিকল্প পথে চলাচল করছে এতোদিন । দীর্ঘদিন কালীগঞ্জ ঘাটে লঞ্চ না ভেড়ায় যাত্রীদের সুবির্ধার্থে লঞ্চ পুন:রায় ওই ঘাটে ভিড়তে বাংলাদেশ অভ্যন্তরীন নৌ পরিবহন (বি আই ডাব্লিও টি এ) মন্ত্রনালয় থেকে নোটিশ দিয়েছে লঞ্চ কম্পানিকে। নোটিশ পেয়ে লঞ্চ কালীগঞ্জ ঘাটে ভিড়লেও আবারো বাধা দিচ্ছে সাংসদ পঙ্কজ নাথের লোকজন। এমন অভিযোগ করেছে লঞ্চ কৃর্তপক্ষ।

লঞ্চ ঘাটে ভেড়ার বাধা দেয়ার কারনের বিষয়ে জানতে চাইলে কর্তৃপক্ষ জানায়, পূর্বে কালীগঞ্জ ঘাটে এমভি ফারহান লঞ্চ কর্তৃপক্ষকে দুই ঘণ্টা অপেক্ষা করতে বলেছিলেন সংসদ সদস্য পঙ্কজ নাথ। সেদিন বিষয়টি যাত্রীরা জেনে গেলে তাদের চাপে কর্তৃপক্ষ লঞ্চ ছাড়তে বাধ্য হয়। আর সংসদ সদস্য পঙ্কজ নাথ এতে ক্ষিপ্ত হন। এরপর ওই দিন রাত থেকে একই কম্পানির ওই রুটে চলাচলকৃত ৫টি লঞ্চ এমভি ফারহান ৩ ও ৪ এবং টিপু-০ টিপু ৫ ও পানামা লঞ্চ যাতে কালীগঞ্জ ঘাটে ভিড়তে না পারে, সে নির্দেশ দিয়েছিলো সাংসদ পঙ্কজ। পরে সংসদ সদস্যের অনুসারীরা লাঠিসোঁটা নিয়ে ঘাটে অবস্থান করে যাত্রী ওঠানামায় বাধা দেয়।

তাই ওই কম্পানির হাতিয়া-ঢাকা রুটের লঞ্চ ও দৌলাত খা-ঢাকা রুটের লঞ্চ এবং দেয়ান বাড়ি-ঢাকা রুটের এ ৫টি কালীগঞ্জ ঘাটে ভিড়েনি দীর্ঘদিন ধরে। লঞ্চ ঘাটে ভেড়ার বাধা দেয়ায় আবারো চরম ভোগান্তিতে পড়তে হচ্ছে ওই ঘাটের যাত্রীদের। ঘাট থেকে প্রায় দেড় কিলো দুরে যাত্রীদের নামিয়ে দেয়া হয়।

 

এমভি ফারহান ৩ লঞ্চের কর্তৃপক্ষ জানায়, হাতিয়া-ঢাকা রুটে তাঁদের দুটি লঞ্চসহ অন্যন্য রুটে মোট ৫টি লঞ্চ যাত্রী পরিবহন করে ওই ঘাট থেকে। বিআইডাব্লিওটিএ এর নোটিশ পাওয়ায় ১৩ ১৪দিন ধরে ঘাটে ঘাট দেয় ঘাট দেয়ার দ্বিতীয় দিনের পরে আবারো তারা লঞ্চ ঘাটদিতে বাধা প্রদান করে আসছে। তাঁদের কম্পানির লঞ্চ ৫টিকে কালীগঞ্জ ঘাটে যাত্রী নামাতে-ওঠাতে দেওয়া হচ্ছে না। তারা আরো জানায়, গত বৃস্পতিবার ফারহান ৪ লঞ্চ ঘাটে ভেড়ার মুহূর্তে লঞ্চের উপর ইট ছুটে মারতে থাকে এতে কয়েক জন যাত্রী আহায়ত হয় এবং একজনের মাথা ফেটে যায়। এরক সমস্যা প্রতিদিনি হয় বলে জানায় তারা।

কালীগঞ্জ লঞ্চ ঘাটের ইজারাদার রাজু মেম্বার বলেন, এখানকার সংসদ সদস্য মহাদয়ের সাথে ওই কম্পানির কর্তৃপক্ষ না বসা পর্যন্ত এ ঘাটে লঞ্চ ভিরতে দেয়া যাবেনা।
লঞ্চ কম্পানির চেয়ারম্যান বরিশাল-৩ আসনের সংসদ সদস্য গোলাম কিবরিয়া টিপু বলেন, বিআইডাব্লিওটিএ এর নোটিশ পেয়ে হাতিয়া-ঢাকা রুটের ফারহান ৩ ও ফাহান ৪ লঞ্চসহ আরো তিনটি লঞ্চ যাত্রীদের সেবাদিতে পুনরায় কালীগঞ্জ ঘাটে ভিড়লে আবারো ভিড়তে বাধা দিচ্ছে পঙ্কজ নাথের ব্যক্তিগত লোকজন। লঞ্চ ঘাটে ভিড়লে, পঙ্কজ নাথের নির্দেশে লঞ্চ ভাংচুর করে তার সংঙ্গপঙ্গোরা। তিনি আরো বলেন, কোন আওয়ামী লীগ, যুবলীগ ও ছাত্রলীগের কোনই কর্মী লঞ্চ ভিড়তে বাধা দিচ্ছে না অথচ পঙ্কজ নাথ ওই ঘাটে লঞ্চ ভিড়তে দিচ্ছে না। এর আগেও তার নির্দেশে ১০,১৫ বার লঞ্চ ভাংচুর করেছে তার ক্যাডার বাহিনী।
এব্যপারে বরিশাল নদীবন্দর কর্তৃপক্ষের সাথে আলাপ করতে চাইলে তাদের টেলিফোন রিসিভ করেনি।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published.